দেশী চিনা বাদাম I Deshi Peanut I 1 KG

৳ 270.0

চিনা বাদাম কি (What Is Peanut)
চিনা বাদাম হল মুখরোচক স্ন্যাকস। এই বাদামটি বিভিন্ন ভাষায় ভিন্ন নামে পরিচিত। যেমন- হিন্দিতে ‘মুঙ্গফালী‘, তেলেগু ভাষায় ‘পাললেউ’, তামিল ভাষায় ‘কাদালাই’, কানাডায় ‘কাদালে কৈাই’, মালয়ালামে ‘নিলাক্কাদালা’, নামে পরিচিত।

চিনা বাদামে কি কি পুষ্টি আছে (What Are The Nutrients In Peanut)
১০০ গ্রাম চিনা বাদামে পুষ্টি উপাদান রয়েছে –

  • ক্যালরি (৫৬৭)
  • প্রোটিন (২৫.৮ গ্রাম)
  • জল (৭ শতাংশ)
  • চিনি (৪.৭ গ্রাম)
  • কার্বোহাইড্রেট (১৬.১ গ্রাম)
  • ফাইবার (৮.৫ গ্রাম)
  • ফ্যাট (৪৯.২ গ্রাম)
  • ওমেগা -৬ (১৫.৫৬ গ্রাম)
  • ভিটামিন ই (৫৫ শতাংশ)
  • আয়রন (৪.৫৮ মিলিগ্রাম)
  • সোডিয়াম (১৮ মিলিগ্রাম)
  • ক্যালসিয়াম (৯২ মিলিগ্রাম)
  • ম্যাগনেসিয়াম (১৬৮ মিলিগ্রাম)
  • পটাসিয়াম (৭০৫ মিলিগ্রাম)

চিনা বাদামের পুষ্টিগুণের উপকারিতা (Nutritional Benefits Of Peanut)
ক্যালরি:
দেহের শক্তির উৎস ক্যালরি। আমাদের দেহে শক্তির জোগান দেয়।

প্রোটিনঃ
প্রোটিন আমাদের দেহের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। প্রোটিন ছাড়া আমাদের শরীরের ত্বক, চুল, নখ, হাড় কিছুই বিকাশ অসম্ভব। ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়া থেকে শরীরকে প্রতিরক্ষা করে।

কার্বোহাইড্রেট:
কার্বোহাইড্রেটগুলি আমাদের দেহে গ্লুকোজ হিসাবে দ্রুত রক্ত প্রবাহে প্রবেশ করে। স্বাস্থ্যকর ওজন এবং জীবনধারা পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

ফাইবারঃ
হজম স্বাস্থ্য এবং নিয়মিত অন্ত্রের জন্য ফাইবার প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা এবং কোলেস্টেরল উন্নত করতে পারে। এটি ডায়াবেটিস, অন্ত্রের ক্যান্সার রোগের জন্য উপকার।

ফ্যাটঃ
ফ্যাট আমাদের ডায়েটের একটি অপরিহার্য অঙ্গ এবং সুস্বাস্থ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন ধরণের চর্বি রয়েছে, কিছু ফ্যাট অন্যদের চেয়ে স্বাস্থ্যকর থাকে।

ওমেগা -৬ঃ
লোকেরা যদি পর্যাপ্ত ওমেগা -6 ফ্যাটি অ্যাসিড না খায় তবে কোষগুলি সঠিকভাবে কাজ করবে না।

ভিটামিন ই:
ভিটামিন ই শরীরের অনেক অঙ্গের সঠিক ক্রিয়াকলাপের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন। এটি অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টও। এর অর্থ এটি কোষের ক্ষতিগ্রস্থ প্রক্রিয়াগুলি ধীর করতে সহায়তা করে।

আয়রনঃ
নিমিয়া রোগের জন্য উপকারী এবং রোগ প্রতিরোধক শক্তি বৃদ্ধি করে।

সোডিয়ামঃ
মস্তিষ্কের কাজ, রক্ত, হৃদয় ইত্যাদির জন্য উপকারী। আমাদের দেহে সঠিক পানির ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে।

ক্যালসিয়ামঃ
শরীরের হাড় এবং দাঁত মজবুত করতে সহায়তা করে।

ম্যাগনেসিয়ামঃ
সুগারের রোগীদের জন্য উপকারি এবং হাড় মজবুত রাখে। হৃদরোগ থেকে রক্ষা করার জন্য উপকৃত।

পটাসিয়ামঃ
রক্তচাপ সঠিকভাবে বজায় থাকে এবং এটি পেশী শক্তিশালী করে।

চিনা বাদাম খাওয়ার উপকারিতা (Benefits Of Eating Peanut)
প্রচুর শক্তির উৎস
চিনা বাদাম প্রচুর পরিমানে খনিজ, পুষ্টি, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন ধারন করে এবং প্রচুর পরিমাণ শক্তির উৎস এটি।

খারাপ কোলেস্টেরল মাত্রা কমায়
কোলেস্টেরল হওয়ার একমাত্র কারণ হল অপুষ্টিকর খাবার এবং অতিরিক্ত তৈলাক্ত খাদ্য গ্রহণ। নিয়মিত চিনা বাদাম খেলে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে পাশাপাশি ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে।

পাকস্থলী ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে
পলি-ফেনোলিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্টগুলি চিনা বাদামে উচ্চ মাত্রায় উপস্থিত। যা পাকস্থলীর ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করে।

দেহের বিকাশ
চিনা বাদাম উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ। এর মধ্যে উপস্থিত অ্যামিনো অ্যাসিড শরীরের উন্নয়ন এবং বিকাশের জন্য উপকারি।

রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে
পুষ্টির অভাব জনিত কারনে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কমে যায়। যার দরুন নানা ধরনের রোগের উৎপত্তি হয়। যেমন- সর্দি, কাশি, জ্বর, মাথা ব্যথা, শরীরে দুর্বলতা ইত্যাদি। চিনা বাদামে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায়।

স্বাস্থ্যকর ত্বক
বাদামের মধ্যে উপস্থিত ফাইবার দেহের টক্সিন এবং বর্জ্য পদার্থ বর্জন করার জন্য অপরিহার্য। শরীরের ভেতরে থাকা দূষিত পদার্থ আমাদের বাইরের চেহারায় প্রতিফলিত করে। যার ফলে মলিনতা, অতিরিক্ত তেল সৃষ্টি হয়। প্রতিদিন চিনা বাদাম, আপনার শরীরের অতিরিক্ত বিষাক্ত পদার্থ নিঃসারিত করে স্বাস্থ্য লাবণীয় ত্বক দিতে সহায়তা করে।

ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে

চিনা বাদাম রয়েছে ভিটামিন ই এবং ম্যাগনেসিয়াম যা ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে ত্বক গ্লোয়িং করে তোলে এবং ব্রণ কমাতে সাহায্য করে। নিয়মিত চিনা বাদাম খাওয়ার ফলে ত্বকে ফুসকুড়ি হওয়ার প্রবণতা কম থাকে।

চুলের পুষ্টি জোগায়
চুলের স্বাস্থ্যসম্মত রাখতে যে সমস্ত প্রোটিনের প্রয়োজন তা চিনা বাদামে রয়েছে। এতে উচ্চ মানের ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা মাথার স্ক্যাল্প শক্তিশালী করার পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধি করে ।

চুল-বৃদ্ধি-করে
ভিটামিন ই এর অভাবে চুলের গোঁড়া দুর্বল হয়ে পড়ে। যার দরুন অতিরিক্ত পরিমাণে চুল পড়ে। ভিটামিন ই হল স্ক্যাল্পের পুষ্টি, যা চিনা বাদামে উপস্থিত। তাই নিয়মিত চিনা বাদাম খেলে চুল পুষ্টি পায় পাশাপাশি চুল বৃদ্ধি হয় ।

তাহলে দেখলেন তো চিনা বাদাম খাওয়া কতটা উপকার। তাহলে আজ থেকেই আপনার খাবারের তালিকায় চিনা বাদাম যোগ করুন নিজেকে সুস্থ রাখতে।

চিনা বাদামের সাইড এফেক্ট (Side Effects Of Peanut)
যেকোনো খাবার খাওয়ার জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ রয়েছে। আপনি যদি মাত্রাতিরিক্ত খান তাহলে শরীরে খারাপ প্রভাব পড়ে। ঠিক তেমন চিনা বাদাম অতিরিক্ত মাত্রায় খেলে তার কিছু সাইড এফেক্ট থাকে। চিনা বাদাম মাত্রাতিরিক্ত খেলে আমাদের যা সমস্যা হতে পারে সেগুলি হল-

  • আপনার ত্বকের চুলকানি এবং ফুসকুড়ি হতে পারে।
  • বেশি পরিমাণে চিনাবাদাম গ্যাস, বুক জ্বালা বা অ্যাসিডিটি হতে পারে।
  • চিনাবাদাম অ্যালার্জি হতে পারে।
  • গরমে অতিরিক্ত খেলে পেট খারাপ হতে পারে।
  • থাইরয়েড যাদের আছে তাদের সমস্যা হতে পারে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য : পণ্যের মান নিয়ে কোন অভিযোগ থাকলে পণ্য পরিবর্তন অথবা মূল্য ফেরত যোগ্য।আপনার যে কোন পরামর্শ বা উপদেশ সাদরে গ্রহন করা হবে। যা নিরাপদ খাদ্য আন্দোলনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

⊕ ⇒ দেশী চিনা বাদাম’এর মূল্য :   ১ কেজি ২০০/-  টাকা ।

অর্ডার কনফার্ম করার জন্য কল  করুন ::

☎ মোবাইল / হোয়াটস এপপ্স / ইমো # 01707001971
—————————————————————————————

👉ঢাকা সিটিতে পণ্য হাতে পেয়ে টাকা পরিশোধ করবেন।
👉ক্যাশ অন ডেলিভারী Cash on Delivery (COD).

🔴অর্ডার করার জন্য, আমাদের মোবাইলের ইনবক্সে মেসেজ সেন্ড করুনঃ

১.১  নাম #

১.২.ঠিকানা (বিস্তারিত)  #   বাড়ী নম্বর   #  কত তলা/ফ্লাট নম্বর  # , রোড নম্বর   # ,থানার নাম #

( লোকেশনের কাছাকাছি পরিচিত স্থান/বাজার/স্কুলের নাম)

২.১ আপনার মোবাইল নম্বর (সম্ভভ হলে )

২.২ ২য় কন্টাক্ট পারসনের নাম ও মোবাইল নম্বর

৩. প্রোডাক্ট এর নাম ,কোড অথবা ছবি ও পরিমান

[ মেসেজ পাঠানোর পর আমরা আপনার সাথে যোগাযোগ করে অর্ডার কনফার্ম করবো ]
=========================================

🟥ঢাকা সিটিতে ডেলিভারি চার্জ নুন্যতম ৮০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে প্রতি কেজির জন্য ১৫ টাকা হারে  ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে)।

🟥ঢাকা সিটির বাইরে কুরিয়ার থেকে ডেলিভারি চার্জ ১২০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে )।

🟥ঢাকা সিটির বাইরে জেলা বা উপজেলায় হোম ডেলিভারি চার্জ ১৫০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে প্রতি কেজির জন্য ৩০ টাকা হারে ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে)।

🔴ঢাকা সিটির বাইরে থেকে অর্ডারটি নিশ্চিত করতে পণ্যের সম্পুর্ন মুল্য 🔴 এডভান্স প্রযোজ্য বিকাশ, নগদ ও রকেট অথবা ব্যাংকের মাধ্যমে। ( COD তে ক্যাশ কালেকশনে ১% চার্জ দিতে হবে । বিকাশ, নগদ ও রকেট চার্জ প্রযোজ্য)

🛑Bkash  : 0170 700 1971 ( Personal )

🛑Nagad : 0170 700 1971 ( Personal )

🛑Rocket : 0170 700 19718 ( Personal )

🛑DUTCH BANGLA BANK

👉AC NAME # MD ABDUR ROUF, SAVINGS AC # 2361 5168 939

🛑মোবাইলে অর্ডার দিতে কল করুন ::☎ মোবাইল / হোয়াটস এপপ্স / ইমো  #  01707001971

[ সকাল ১০টা থেকে রাত ১০ টার মধ্যে, ফোনে না পেলে এস এম এস দিয়ে রাখুন 0170 700 1971 নম্বরে ]

Out of stock

Description

চিনা বাদামের যাদু

সহজে বহনযোগ্য খাবারের মধ্যে বাদামের কথা প্রথমেই আসে। এই ব্যস্ত দিনে কাজের ফাঁকে সময় করে কাজের ফাঁকে যদি প্রতিদিন অল্প করে বাদাম খাওয়া যায় তবে মন্দ হয় না। বাদাম শুধু খেতেই যে অসাধারণ তা নয়, এটি নানা পুষ্টিগুনেও ভরপুর। ফলে এই বাদাম বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

বাদামের ধরণ
বাদাম বলতে সব ধরণের বাদামকেই এক্ষেত্রে ধরা হয়, যেমন- চিনাবাদাম, আখরোট , কাজু , আমন্ড , পেস্তা , চেস্ট নাট, ব্রাজিলনাট প্রভৃতি।

বাদামের মধ্যে যা থাকে
আকারে ছোট হলেও সকল প্রকার খাদ্য গুণাগুণ এতে বর্তমান। যেমন- ফ্যাটি অ্যাসিড, ফাইবার, কার্বোহাইড্রেট, লিউটিন, জিজ্যানথিনের মতো অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। এক’শ গ্রাম চিনা বাদাম থেকে আমরা পাই, ২.৯ গ্রাম খনিজ, ১.৭ গ্রাম আশ, খাদ্যশক্তি কিলো ক্যালোরি ৬৫৫, প্রটিন ২০.৮ গ্রাম, তেল ৫৮.৯ গ্রাম, শর্করা ১০.৫ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ২৩০ মিলি গ্রাম ও লৌহ .৫ মিলি গ্রাম খাদ্যগুণ পাওয়া যায়।

কোলেস্টেরল কমায় চিনা বাদাম
বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে বর্তমানে কোলেস্টেরলে আক্রান্ত হওয়ার প্রধান কারণ হল অপুষ্টিকর ও তৈলাক্ত খাবার। শরীরের মাত্রাধিক কোলেস্টেরল হৃদরোগ, উচ্চ রক্ত চাপ, ওজন বৃদ্ধি ও ডায়াবেটিস এর মতো কঠিন রোগ সৃষ্টি করে।বাদামের অসাধারন কার্যকরী ফ্যাট শরীর থেকে কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। তাছাড়া, এই বাদাম শরীরের চর্বি কমাতেও সাহায্য করে। শরীরের কোলেস্টেরল কমাতে প্রতিদিন ১০-১২ টি বা এক মুঠো চিনাবাদাম খেতে পারেন।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সাহায্য করে
চিনা বাদাম রক্ত থেকে সুক্রোজ এর মাত্রা কমায়। প্রতিদিন সকালে এটি নাস্তার সাথে খেতে পারেন। তাছাড়া রাতে ১০-১৫ টি বাদাম পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খেলে ডায়াবেটিস অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণে থাকে। চিনা বাদামের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট দুর করতে বিশেষ ভাবে কার্যকরী।

ওজন কমাতে বেশ কার্যকরী
বাংলাদেশে অতিরিক্ত ওজনের সমস্যায় ভুগছেন এমন মানুষের সংখ্যা অনেক। শরীর থেকে ওজন কমাতে ভালো ফ্যাটের প্রয়োজন অত্যাবশ্যক। চিনা বাদাম থেকে আপনি সেই ভালো ফ্যাট পাবেন। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এক মুঠো বাদাম যুক্ত করে আপনি অতিরিক্ত ওজনের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। তাছাড়া এটি আপনার শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করতেও সহায়তা করে।
স্মৃতি শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে
কিছু কিছু মানুষের স্মৃতিশক্তি তুলনামুলক ভাবে অন্যদের চেয়ে কম। খুব অল্প বয়সেই অনেকেই ভুঘছেন মস্তিষ্কের সমস্যায়। ভুলে যাচ্ছেন সামান্য বিষয় এবং অনেক চেষ্টা করেও মনে রাখতে পারছেন না। এমনটা হয় যখন আমাদের মস্তিস্ক পরিমান মতো পুষ্টি পায়না। একে মস্তিষ্কের খাবার হিসেবে গন্য করা যায়। চিনা বাদামে প্রচুর পরিমানে বি৩ আছে যা মস্তিষ্কের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করে। তাই প্রতিদিন চিনা বাদাম বা এর মাখন খাবেন, যাতে করে আপনি স্বয়ংক্রিয় মস্তিস্ক পেতে পারেন।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
ছোটো ছোটো কারনে রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন যেমন ঠাণ্ডা, কাশি, মাথা ব্যথা, দুর্বলতা, খাওওায় অরুচিআ এবং নিদ্রাহীনতা। শরীরে সঠিক পরিমানে পুষ্টি না থাকলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। চিনা বাদামের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট শরীরে কঠিন রোগকে বাসা বাধতে বাঁধা দান করে। তাই, প্রতিদিন চিনা বাদামখেয়ে শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ান।চিনা বাদামের সকলস্বাস্থ্য উপকারিতা উপভোগকরতে প্রতিদিন অবশ্যইএকমুঠো চিনা বাদামখেতে পারেন। স্বাস্থ্যকরজীবনযাপন এর জন্য চিনাবাদাম আপনাকে বিশেষভাবে সাহায্য করবে।

বাদাম খেয়ে কেন পানি খেতে নেই?

বাদাম খেয়ে পানি খেতে নেই। ছোটবেলা থেকে এই কথাটা শুনে বড় হয়েছি আমরা। বিশেষ করে চীনা বাদাম। কেন বাদাম খাওয়ার পর পানি খেতে বারণ করা হয় সে বিষয়ে যদিও স্পষ্ট ধারণা নেই আমাদের। কী হয় বাদাম খাওয়ার পর পানি খেলে?
চিকিৎসকরা বলেন, চীনা বাদাম শরীর গরম করে। তাই সাধারণত শীতকালেই চীনা বাদাম বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। বাদাম খেলে শরীরে যে তাপ উৎপন্ন হয় পানি তা ঠান্ডা করে দেয়। বাদাম খেতে খেতে পানি খেলে তাই সর্দি-গর্মি লেগে যেতে পারে। আবার বাদামে যেহেতু তেল থাকে তাই তারপর পানি খেলে খাদ্যনালীতে ফ্যাট জমা হয়। ফলে কাশি হয়। বাচ্চারা বাদাম খাওয়ার পর পানি খেলে হজমে সমস্যা হয়। আবার অনেক সময় বাদামে অ্যালার্জির কারণে গলায় চুলকানির সমস্যাও হতে পারে। তখন পানি খেলে পরিস্থিতি আরও খারাপ দিকে যেতে পারে।
বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যদি পানি খেতেই হয় তা হলে অন্তত ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে তবে পানি খান। সূত্র : ওয়েবাসইট।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “দেশী চিনা বাদাম I Deshi Peanut I 1 KG”

Your email address will not be published. Required fields are marked *