পেস্তা বাদাম – প্রিমিয়াম কোয়ালিটি I Piesta Nuts – Premium Quality I 500 gm

৳ 1,150.0

পেস্তা বাদামের যত উপকারিতা

উজ্জ্বল সবুজ রঙের দারুণ সুস্বাদু বাদামটির নাম যে পেস্তা, এটা মোটামুটি সকলেই জানেন। দামটা বেশ চড়া হলেও বিশেষ উৎসবের পায়েস, সেমাই , পোলাওতে পেস্তার দেখা মেলেই। যারা পেস্তা বাদাম খান না, তাঁরাও কিন্তু চেনেন পেস্তা ফ্লেভারের আইসক্রিম। সব মিলিয়ে সুস্বাদু এই খাবারটির সাথে আমাদের সম্পর্ক কম দিনের নয়। পেস্তা বাদাম তো খাওয়া হয় প্রায় সবারই, কিন্তু জানেন কি পেস্তার গুণাবলী? পেস্তা নিয়মিত খেলে কী উপকার হয় শরীরের আর দৈনিক কটা বাদাম খাওয়া স্বাস্থ্যসম্মত? চলুন, জেনে নিই।

পেস্তার গুণাগুণ
১.পেস্তাবাদামে রয়েছে মনো-আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট, যা কোলেস্টেরল লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখতে অত্যন্ত কার্যকরী। ফলে পেস্তা বাদাম হৃদরোগের ঝুঁকিও কমাতে কার্যকর।
২. প্রোটিনের একটা চমৎকার উৎস হচ্ছে পেস্তা।
৩. ফসফরাস, পটাসিয়াম, সোডিয়াম, কপার, ম্যাগনেসিয়ামের দারুণ উৎস হচ্ছে পেস্তা বাদাম। এদিকে এতে ফ্যাটের পরিমাণ পণ্য বাদামের চাইতে অনেকটাই কম।

৪. ডায়বেটিসে যারা আক্রান্ত, তাঁদের জন্য পেস্তা বাদামে থাকা স্বাস্থ্যকর তেল বিশেষভাবে উপকারী।
৫. প্রতিদিন নির্দিষ্ট পরিমান বাদাম খেলে ত্বক ফর্সা ও উজ্জ্বল হয়।
৬. পেস্তা বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি-৬।

৭. যা ইনসুলিনের ওপর নির্ভরশীল নয়, এধরনের ডায়বেটিসে যারা আক্রান্ত পেস্তা বাদামে থাকা স্বাস্থ্যকর তেল তাদের জন্য বিশেষভাবে উপকারী।
৮. পেস্তাবাদামে লুটেন নামক এক ধরনের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা বয়সের কারণে সৃষ্ট নানা শারীরিক সমস্যা যেমন মাংসপেশির দুর্বলতা, চোখের ছানির সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে।
৯. অন্য সকম বাদামের চাইতে পেস্তায় রয়েছে অধিক পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফাইটোস্টেরল।
এতে উপস্থিত ফাইবার কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধে সাহায্য করে।
১০. দাঁতের রোগ ও লিভারের সমস্যায় পেস্তাবাদাম বেশ উপকারী। পেস্তা বাদাম রক্ত শুদ্ধ করে।

কীভাবে খাবেন
১. রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে আগের দিন রাতে দুধে অথবা পানিতে ভিজিয়ে রাখা বাদাম খান।
২. খালি পেটে খেলে বাদামের পুষ্টিগুণ শরীরে তাড়াতাড়ি হজম হবে। দৈনিক ৬/৭ টা বাদাম খেলেই যথেষ্ট।

৩. লবণ দিয়ে ভাজা বাদাম বা প্রক্রিয়াজাত করা বাদাম খাবেন না।
৪. বাদামের ওপরের পাতলা খোসাটা ছাড়িয়ে খান। কাঁচা চিবিয়ে খেতে পারলেই সবচাইতে ভালো। নাহলে ক্ষীর বা মিষ্টি কোন খাবারের সাথে খান। বেটে নিয়ে দুধে মিশিয়েও খেতে পারেন। তথ্য সূত্র- হেলথ ডাইজেট,

বিশেষ দ্রষ্টব্য : পণ্যের মান নিয়ে কোন অভিযোগ থাকলে পণ্য পরিবর্তন অথবা মূল্য ফেরত যোগ্য।আপনার যে কোন পরামর্শ বা উপদেশ সাদরে গ্রহন করা হবে। যা নিরাপদ খাদ্য আন্দোলনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

⊕ ⇒ পেস্তা বাদামের মূল্য’এর মূল্য : 

☑পেস্তা বাদামের মূল্য  ১ কেজি ১,৭০০/- টাকা , ৫০০ গ্রাম  ৮৫০/- টাকা ।

অর্ডার কনফার্ম করার জন্য কল  করুন ::

☎ মোবাইল / হোয়াটস এপপ্স / ইমো # 01707001971
—————————————————————————————

👉ঢাকা সিটিতে পণ্য হাতে পেয়ে টাকা পরিশোধ করবেন।
👉ক্যাশ অন ডেলিভারী Cash on Delivery (COD).

🔴অর্ডার করার জন্য, আমাদের মোবাইলের ইনবক্সে মেসেজ সেন্ড করুনঃ

১.১  নাম #

১.২.ঠিকানা (বিস্তারিত)  #   বাড়ী নম্বর   #  কত তলা/ফ্লাট নম্বর  # , রোড নম্বর   # ,থানার নাম #

( লোকেশনের কাছাকাছি পরিচিত স্থান/বাজার/স্কুলের নাম)

২.১ আপনার মোবাইল নম্বর (সম্ভভ হলে )

২.২ ২য় কন্টাক্ট পারসনের নাম ও মোবাইল নম্বর

৩. প্রোডাক্ট এর নাম ,কোড অথবা ছবি ও পরিমান

[ মেসেজ পাঠানোর পর আমরা আপনার সাথে যোগাযোগ করে অর্ডার কনফার্ম করবো ]
=========================================

🟥ঢাকা সিটিতে ডেলিভারি চার্জ নুন্যতম ৮০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে প্রতি কেজির জন্য ১৫ টাকা হারে  ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে)।

🟥ঢাকা সিটির বাইরে কুরিয়ার থেকে ডেলিভারি চার্জ ১২০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে )।

🟥ঢাকা সিটির বাইরে জেলা বা উপজেলায় হোম ডেলিভারি চার্জ ১৫০ টাকা ( অতিরিক্ত ওজনে প্রতি কেজির জন্য ৩০ টাকা হারে ডেলিভারি চার্জ বৃদ্ধি পাবে)।

🔴ঢাকা সিটির বাইরে থেকে অর্ডারটি নিশ্চিত করতে পণ্যের সম্পুর্ন মুল্য 🔴 এডভান্স প্রযোজ্য বিকাশ, নগদ ও রকেট অথবা ব্যাংকের মাধ্যমে। ( COD তে ক্যাশ কালেকশনে ১% চার্জ দিতে হবে । বিকাশ, নগদ ও রকেট চার্জ প্রযোজ্য)

🛑Bkash  : 0170 700 1971 ( Personal )

🛑Nagad : 0170 700 1971 ( Personal )

🛑Rocket : 0170 700 19718 ( Personal )

🛑DUTCH BANGLA BANK

👉AC NAME # MD ABDUR ROUF, SAVINGS AC # 2361 5168 939

🛑মোবাইলে অর্ডার দিতে কল করুন ::☎ মোবাইল / হোয়াটস এপপ্স / ইমো  #  01707001971

[ সকাল ১০টা থেকে রাত ১০ টার মধ্যে, ফোনে না পেলে এস এম এস দিয়ে রাখুন 0170 700 1971 নম্বরে ]

Description

পেস্তা বাদাম

পরিচিত বিভিন্ন ধরনের বাদামের মাঝে পেস্তা বাদাম অন্যতম। তবে পেস্তা আদতে একটি ফল, যার বীজগুলোকে খেয়ে থাকি আমরা। স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, আঁশ, প্রোটিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এই বাদামটি স্বাস্থ্য উপকারিতা ও সুস্বাদের জন্য বেশ পরিচিত। অন্যান্য স্বাস্থ্য উপকারিতার পাশাপাশি চোখ ও হৃদযন্ত্রের জন্য বিশেষভাবে উপকারী হওয়ায় চেষ্টা করতে হবে প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসে পেস্তা বাদাম রাখার জন্য।

বাড়ায় কোলনের কার্যকারিতা
দ্রবণীয় আঁশের চমৎকার উৎস হলো পেস্তা বাদাম। এ কারণে পেস্তা বাদাম গ্রহণে পাকস্থলিস্থ খাদ্য ভালোভাবে পরিপাক হতে পারে এবং এতে করে কোলন সুস্থ থাকে। প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসে দ্রবণীয় আঁশযুক্ত খাবার থাকলে বাওয়েল মুভমেন্ট ঠিকভাবে হয়। যেহেতু পেস্তা বাদাম থেকে প্রচুর পরিমাণ আঁশ পাওয়া যায়, বাওয়েল মুভমেন্টের জন্য এই বাদাম গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।

চোখের জন্য উপকারী
প্রাকৃতিক সকল বাদামই উপকারী ও স্বাস্থ্যকর। তবে শুধুমাত্র পেস্তা বাদাম থেকেইই পাওয়া যায় পর্যাপ্ত পরিমাণ ক্যারোটেনয়েডস (Carotenoids) যা Zeaxanthin ও Lutein নামে পরিচিত। দ্রবণীয় ক্যারোটেনয়েডস অন্যান্য শারীরিক উপকারিতার সাথে চোখের সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনাকে কমিয়ে আনে।

Zeaxanthin ও Lutein নামক ক্যারোটেনয়েডস চোখের লেন্স ও রেটিনায় উপস্থিত থাকে। এ কারণে এপিডেমিওলোজিক্যাল স্টাডিস এর ফলাফল থেকে জানানো হয় যে, ক্যারোটেনয়েডস সমৃদ্ধ খাদ্য উপাদান বয়সজনিত চোখের সমস্যা ম্যাকুলার ডিজেনারেশন তৈরি হওয়ার প্রক্রিয়াকে স্লথ ক্লরে দেয়।

পেস্তা বাদাম নিয়ন্ত্রণে রাখে ডায়াবেটিস
খুব দারুনভাবেই ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করে পেস্তা বাদাম। মূলত উপকারী এই বাদামটি গ্লাইকেশন (Glycation) প্রক্রিয়ার হারকে কমিয়ে আনে, যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ
বেটা-ক্যারোটিন, লুটিন ও গামা-টকোফেরলসহ চমৎকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের অন্যতম উৎকৃষ্ট উৎস হল পেস্তা বাদাম। বেটা-ক্যারোটিন ও গামা-টকোফেরল যথাক্রমে ভিটামিন- এ ও ই এর অগ্রদূত হিসেবে কাজ করে। এদিকে ভিটামিন-এ ও ই উভয়ই অ্যান্টিঅক্সিডেন্ত হিসেবে কাজ করে এবং অক্সিডেটিভ ড্যামেজের বিরুদ্ধে কাজ করে।

সুস্থ রাখে হৃদযন্ত্র
সঠিক পরিমাণ পেস্তা বাদাম গ্রহণ হৃদযন্ত্রের জন্য খুবই উপকারী। মনোআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটের অন্যতম উৎস হওয়ার দরুন রক্তে খারাপ কোলেস্টেরল (LDL) এর মাত্রা কমাতে কাজ করে পেস্তা বাদাম। এই খারাপ কোলেস্টেরল হার্ট অ্যাটাক থেকে শুরু করে যাবতীয় হৃদরোগ দেখা দেওয়ার অন্যতম বড় একটি কারণ।

অবশ্যই শুধুমাত্র পেস্তা বাদাম নিয়মিত খাওয়ার ফলে হৃদরোগ দূরে থাকবে, ব্যাপারটা এমন নয়। তবে দৈনিক খাদ্যাভ্যাসে উপকারী খাদ্য উপাদানের সাথে পেস্তা বাদাম রাখতে পারলে উপকার পাওয়া যাবে অনেকখানি।

বেশ কিছু গবেষণার ফল জানাচ্ছে, রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই বাদাম খুব ভালো কাজ করে। ফলে হৃদরোগে আক্রান্তদের নিয়মিত ৬-৭টি পেস্তা বাদাম গ্রহণের পরামর্শ দেন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা।

পেস্তা বাদাম বাড়ায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা
প্রতিদিন পরিমিত পরিমাণ পেস্তা বাদাম গ্রহণে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। মূলত এতে থাকা ভিটামিন-বি৬ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে দৃঢ় করতে ও সঠিকভাবে কার্যকর করতে কাজ করে। এছাড়া উপকারী এই বাদামে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কার্যকর।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “পেস্তা বাদাম – প্রিমিয়াম কোয়ালিটি I Piesta Nuts – Premium Quality I 500 gm”

Your email address will not be published. Required fields are marked *